মঙ্গলবার, ২০-আগস্ট ২০১৯, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ন
  • জেলা সংবাদ
  • »
  • অস্ত্রের মুখে ৩৬ লক্ষ টাকার চেক লিখিয়ে নিলেন উপজেলা ভাইসচেয়ারম্যান

অস্ত্রের মুখে ৩৬ লক্ষ টাকার চেক লিখিয়ে নিলেন উপজেলা ভাইসচেয়ারম্যান

shershanews24.com

প্রকাশ : ২০ মে, ২০১৯ ০৮:৪৩ অপরাহ্ন


শীর্ষকাগজ, বরিশাল: বরিশালের গৌরনদী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও এলাহী অটো রাইস মিলের মালিক মো. ফরহাদ হোসেন মুন্সির বিরুদ্ধে খাদ্যগুদামে চাল না দিয়ে উপজেলা ভারপ্রাপ্ত খাদ্যগুদাম কর্মকর্তাকে তার রুমের মধ্যে অবরুদ্ধ করে টেবিলে আগ্নেয়াস্ত্র রেখে হুমকি দিয়ে ও চাপ প্রয়োগ করে ৩৬ লক্ষ টাকার চেক লিখিয়ে নেওয়াসহ সেখানে অবৈধ প্রভাব বিস্তারের মাধ্যমে নানা অপকর্মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
জানা গেছে, গতকাল সোমবার সকালে সরকারের বোরো ধান চাল সংগ্রহ কার্যক্রমের আওতায় কৃষকের কাছ থেকে ন্যায্যমুল্যে ধান সংগ্রহ কার্যক্রম উদ্বোধনকালে চাল ভর্তি তিনটি ট্রাক গুদাম এলাকায় প্রবেশ করায় পৌর মেয়র হারিছুর রহমানের জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে জনসমক্ষে ফাঁস হয়ে যায় খাদ্য গুদাম কর্মকর্তাকে জিম্মি করে ভাইস চেয়ারম্যান ফরহাদ হোসেন মুন্সীর দীর্ঘদিন ধরে চালানো সকল অবৈধ কর্মকান্ডের ফিরিস্তি।
এ সময় গৌরনদী উপজেলা ভারপ্রাপ্ত খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্রপাল গৌরনদী উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দা মনিরুন নাহার মেরী, গৌরনদী পৌর মেয়র মোঃ হারিছুর রহমান, উপজেলা নারী ভাইস চেয়ারম্যান জিনিয়া আফরোজ হেলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা নাছরিন ও গৌরনদী পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ মনির হোসেন মিয়ার কাছে মৌখিক অভিযোগ করেন যে, গৌরনদী উপজেলা ভাইসচেয়ারম্যান ও এলাহী অটো রাইস মিলের মালিক মোঃ ফরহাদ হোসেন মুন্সি দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে কোন প্রকার নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে, সরকারি নিষেধাজ্ঞাকে উপেক্ষা করে গৌরনদী খাদ্যগুদামে পঁচা চাল ও ছেড়া বস্তা দিয়ে আসছে। তিনি এ গুদামে যোগদান করার পর ভাইস চেয়ারম্যানের এহেন কার্যকলাপে বাঁধা প্রদান করলে তিনি তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করেন। যা ফুড ইন্সপেক্টর অশোক চৌধুরী অবগত আছেন।
একই সময় তিনি জানান, এবারে সারা দেশব্যাপি ধান সংগ্রহের জন্য মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নির্দেশ অনুসারে গৌরনদীতে আমরা যখন ধান সংগ্রহের জন্য ব্যস্ত, তখন ফরহাদ হোসেন মুন্সী গত ১৮ মে আমার কাছে এসে গুদামে চাল দেওয়ার প্রস্তাব করেন। আমি তার চাল না নিয়ে এই মুহূর্তে ধান ক্রয় করা সংক্রান্ত মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নির্দেশ বাস্তবায়নের জন্য গুদাম খালি রাখার কথা জানালে, সে আমাকে চাঁপ প্রয়োগ পুর্বক হুমকির মাধ্যমে রুমের মধ্যে অবরুদ্ধ করে রাখে। এক পর্যায়ে আমার রুমের টেবিলের ওপর অবৈধ অস্ত্র রেখে আমাকে ভয় দেখায় এবং আমাকে হুমকি দেয় যে, এ উপজেলায় চাকরি করতে হলে আমার নির্দেশ মানতে হবে। এরপর চাল না দিয়ে সে জোর পূর্বক আমাকে ৩৬,০০,৭২০/- (ছত্রিশ লক্ষ সাতশত বিশ) টাকার একটি অগ্রীম চেক দিতে বাধ্য করেন। যার চেক নম্বর- ডছঝঈ ২৬৬০৯৫০। জীবনের ভয়ে আমি এ কথা এর আগে কাউকে জানাইনি।
গৌরনদী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও এলাহী এ্যাগ্রো অটো রাইস মিলের মালিক ফরহাদ হোসেন মুন্সীর নানা অপকর্মের ফিরিস্তি তুলে ধরার পর ওই ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহনসহ নিজের চাকরি ও জীবনের নিরাপত্বা চেয়ে উপজেলা ভারপ্রাপ্ত খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্রপাল গতকাল সোমবার দুপুরে গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা নাছরিন এর বরাবরে একটি আবেদন করেছেন। 
যার অনুলিপি দেয়া হয়েছে বরিশাল-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্, জেলা প্রশাসক বরিশাল ও আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক বরিশালকে।
আবেদন প্রাপ্তির সত্যতা নিশ্চিত করে গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা নাছরিন জানান, এ ব্যাপারে সরকারি বিধি মোতাবেক ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।
অভিযোগ অস্বীকার করে গৌরনদী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও এলাহী এ্যাগ্রো অটো রাইস মিলের মালিক ফরহাদ হোসেন মুন্সী বলেন, উপজেলা ভারপ্রাপ্ত খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্রপাল এর অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।
শীর্ষকাগজ/প্রতিনিধি/জে