শুক্রবার, ০৫-জুন ২০২০, ১২:১৪ অপরাহ্ন
  • অর্থনীতি
  • »
  • বিদেশে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের অর্থ যোগাতে নির্দেশনা

বিদেশে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের অর্থ যোগাতে নির্দেশনা

shershanews24.com

প্রকাশ : ৩০ মার্চ, ২০২০ ০৫:৪১ অপরাহ্ন

শীর্ষ নিউজ, ঢাকা: নভেল করোনাভাইরাসের মহামারীর মধ্যে বিদেশে আটকে পড়া বাংলাদেশিরা যাতে সমস্যায় না পড়েন সেজন্য যাচাইসাপেক্ষে তাদের প্রয়োজনমতো অর্থ যোগাতে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকগুলোকে অনুমতি দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এবিষয়ে রোববার বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা নীতি বিভাগ থেকে বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময়ে অনুমোদিত পরিবেশকদের (অথরাইজড ডিলার) জন্য এক সার্কুলার জারি করা হয়।

এবিষয়ে  বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা নীতি বিভাগের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) হারুন উর রশীদ বলেন, নভেল করোনাভাইরাসের মহামারীর কারণে অনেক বাংলাদেশি বিদেশে আটকে আছেন। সেখানে তাদের জীবন-ধারণে যাতে সমস্যা না হয় সে বিষয়টি মাথায় রেখে সার্কুলারটি জারি করা হয়েছে।

সার্কুলারে অথরাইজড ডিলারদেরকে বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ডে ব্যক্তিগত ভ্রমণ ও চিকিত্সা কোটায় বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয়ের অনুমোদিত সীমা পর্যন্ত অর্থ ছাড়ের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

এর বিকল্প হিসেবে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির নামে বিদেশের ব্যাংক হিসাবে ফান্ড ট্রান্সফারের মাধ্যমে অথবা দেশের কোনো টাকা অ্যাকাউন্ট থেকে বৈদেশিক মুদ্রা স্থানান্তরকারী সংস্থার মাধ্যমেও অথরাইজড ডিলাররা তাদের জন্য তহবিল যোগাতে পারেন বলে সার্কুলারে বলা হয়।


বাংলাদেশিরা ভ্রমণ কোটায় বছরে ১২ হাজার ডলার ও চিকিত্সা  কোটায় ১০ হাজার ডলার বিদেশে ব্যয় করতে পারেন।

তবে এই সীমার বাইরে অনিবার্য কারণে কারও বাড়তি তহবিলের প্রয়োজন হলে অথরাইজড ডিলার নিজে অনুরোধের সত্যতা যাচাই করে সন্তুষ্ট হলে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে টিকে থাকার মতো যৌক্তিক পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা ছাড় করতে পারবে।  কিন্তু এর জন্য পরে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অনুমতি নিতে হবে।

এবিষয়ে  মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সৈয়দ মাহবুবুর রহমানে  বলেন, “বর্তমান পরিস্থিতিতে এটি খুবই ভাল সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমাদের কাছে বাইরে আটকে পড়া কেউ অনুরোধ করলে, আমরা তার আগের রেকর্ড চেক করব, যদি তার অনুরোধ যুক্তিযুক্ত মনে হয় অবশ্যই টাকা দেব।”
শীর্ষ নিউজ/এন