মঙ্গলবার, ০১-ডিসেম্বর ২০২০, ০১:৪১ পূর্বাহ্ন
  • আন্তর্জাতিক
  • »
  • ফ্রান্সবিরোধী বিক্ষোভ, কংগ্রেস নেতাসহ মুসলিমদের বিরুদ্ধে ভারতে মামলা

ফ্রান্সবিরোধী বিক্ষোভ, কংগ্রেস নেতাসহ মুসলিমদের বিরুদ্ধে ভারতে মামলা

shershanews24.com

প্রকাশ : ৩১ অক্টোবর, ২০২০ ০৬:২৭ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ ডেস্ক : মহানবীকে (সা.) বিদ্রূপ করে কার্টুন প্রকাশে সমর্থন ও ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোর ইসলামবিদ্বেষী মন্তব্যের প্রতিবাদ করায় কংগ্রেসের এক বিধায়কসহ মুসলিমদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে ভূপাল পুলিশ। 

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার ভূপালের কংগ্রেস বিধায়ক আরিফ মাসুদের নেতৃত্বে কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী ইকবাল ময়দানে জমায়েত হয়। এসময় তারা ফরাসি প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন। 

এ ঘটনায় কংগ্রেস বিধায়ক, কয়েকজন আলেম এবং ২ হাজার জন অজ্ঞাত ব্যক্তির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ। এ ধরনের বিক্ষোভ বরদাশত করা হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান।  

বিক্ষোভের ভিডিও পোস্ট করে একটি টুইটবার্তায় শিবরাজ বলেন, মধ্যপ্রদেশ হল শান্তির দ্বীপ। যারা রাজ্যের শান্তি বিঘ্নিত করতে চান, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৮৮ ধারার আওতায় মামলা রুজু করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। যেই হোক না কেন, কোনো দোষী ছাড় পাবেন না।

মহানবীকে (সা.) নিয়ে বিদ্রূপাত্মক কার্টুনের জেরে মুসলিম বিশ্বসহ বিশ্বের অধিকাংশ দেশে যখন প্রতিবাদ ও ফ্রান্সের পণ্য বয়কটের ডাক জোরদার হচ্ছে, তখন ভারতে সামাজিকমাধ্যমের হ্যাশট্যাগে তার উল্টো চিত্রই দেখা যাচ্ছে।

দেশটিতে টুইটারে ‘হ্যাশট্যাগ আইস্ট্যান্ড উইথ ফ্রান্স’ ও ‘উই স্ট্যান্ড উইথ ফ্রান্স’ সর্বোচ্চ ট্রেন্ড হিসেবে দেখা গেছে। হাজার হাজার ভারতীয় ফ্রান্সের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে সামাজিকমাধ্যমে হ্যাশট্যাগ বার্তা দিয়েছেন।

‘মৌলবাদী ইসলামের’ বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেয়ায় ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে ব্যক্তিগত আক্রমণের জোরালো নিন্দা জানিয়েছে ভারত। 

বুধবার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কড়া ভাষায় দেয়া এক বিবৃতিতে বলেছে, ম্যাক্রোঁকে ব্যক্তিগত আক্রমণ আন্তর্জাতিক আলোচনার অধিকাংশ মৌলিক মানদণ্ডের লঙ্ঘন।

বিবৃতিতে মহানবীকে (সা.) বিদ্রূপ করে আঁকা কার্টুন শ্রেণিকক্ষে প্রদর্শনের পর গলা কেটে এক ফরাসি শিক্ষককে হত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ভারত। দাবি করা হয়েছে, যে কোনো কারণে কিংবা পরিস্থিতিতে সন্ত্রাসবাদকে ন্যায্যতা দেওয়ার সুযোগ নেই।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ম্যাক্রোঁকে অগ্রহণযোগ্য ভাষায় ব্যক্তিগত আক্রমণের আমরা জোরালো নিন্দা জানাচ্ছি। এটি আন্তর্জাতিক আলোচনার অধিকাংশ মানদণ্ডের লঙ্ঘন।

বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা ওই ফরাসি শিক্ষককে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে হত্যার নিন্দা জানাচ্ছি। তার পরিবার ও ফরাসি জনগণের প্রতি শোক জানাচ্ছি।

বিবৃতির পরে ভারতে নিযুক্ত ফরাসি রাষ্ট্রদূত ইমানুয়েল লেনিন কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে এক টুইটবার্তায় বলেন, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে দুই দেশ পরস্পরের ওপর নির্ভরশীল। ধন্যবাদ ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

চলতি মাসের শুরুতে ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেন, বিশ্বজুড়ে ইসলাম সংকটে আছে। ফরাসি মুসলমানদের বিরুদ্ধে বিচ্ছিন্নতাবাদের অভিযোগ তোলেন তিনি।

এ ছাড়া ওই শিক্ষককে হত্যার ঘটনার পর ম্যাক্রোঁ ইসলাম বিদ্বেষকে আরও উসকে দেন। এতে সারা বিশ্বে মুসলমানদের মধ্যে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। তুরস্ক-পাকিস্তান ফরাসি পণ্য বয়কটের ডাক দেয়া হয়েছে।

রাজধানী থেকে ফরাসি রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কারেরও দাবি তুলেছেন মুসলমানরা। কিন্তু এসব কিছুর বিপরীতে গিয়ে ভারতে প্রকাশ্যে ফরাসি প্রেসিডেন্টের প্রতি সমর্থন দিতে দেখা গেছে।
শীর্ষনিউজ/এসএসআই