মঙ্গলবার, ২২-সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:২৩ পূর্বাহ্ন
  • আন্তর্জাতিক
  • »
  • বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে ব্রাজিল ছাড়া করার হুমকি প্রেসিডেন্ট বোলসোনারোর

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে ব্রাজিল ছাড়া করার হুমকি প্রেসিডেন্ট বোলসোনারোর

shershanews24.com

প্রকাশ : ০৬ জুন, ২০২০ ০৯:১৫ পূর্বাহ্ন

শীর্ষনিউজ ডেস্ক : মিত্র যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতোই করোনা ভাইরাস ইস্যুতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা- ডব্লিউএইচও’র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো। সংস্থাটিতে ‘মতাদর্শগত পক্ষপাতী’ বলে উল্লেখ করে এর কার্যক্রম ব্রাজিল থেকে সরিয়ে দেওয়ার হুমকিও দিয়েছেন তিনি।

প্রেসিডেন্ট প্যালেসের বাইরে সাংবাদিকদের বোলসোনারো বলেন, “আমি এই মুহূর্তে আপনাদের বলছি, যুক্তরাষ্ট্র ডব্লিউএইচওকে ত্যাগ করেছেন। ভবিষ্যতের জন্য আমরাও বিষয়টা পর্যালোচনা করছি। ডব্লিউএইচও হয় মতাদর্শগত পক্ষপাতহীনভাবে কাজ করবে, আর না হয় আমরা তাদের পরিত্যাগ করব।”

অতি ডানপন্থী বোলসোনারোকেও টাম্পের সঙ্গে তুলনা করে থাকেন। করোনা নিয়ে দুজনের মতাদর্শ একই রকম। শুরু থেকেই ট্রাম্পের মতো করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে গুরুত্ব দিচ্ছেন না ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট। এমনকি লকডাউনের ঘোর বিরোধী তিনি।

ট্রাম্পের মতো, বোলসোনারোরও দাবি, কভিড-১৯ চিকিৎসায় দারুণ কার্যকরী ক্লোরোকুইন ও হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন জাতীয় ওষুধ। ওই ওষুধ ব্যবহারে এখনো পিছু যায়নি তার প্রশাসন।

করোনা ভাইরাস ইস্যুতে টানাপোড়েন এবং চীন ঘেঁষার অভিযোগ এনে এক সপ্তাহ আগে  বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা দেন ট্রাম্প। জানান, ডব্লিউএইচওকে অর্থ বরাদ্দ না দিয়ে এসব অর্থ যেসব দেশ স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে সেসব দেশকে দিয়ে দেবেন তিনি।

ট্রাম্পের সুরে এবার জাতিসংঘের অধিভুক্ত সংস্থাটির ক্ষোভ প্রকাশ করলেন ব্রাজিল প্রেসিডেন্ট। বোলসোনারোর সরকারির প্রতি ডব্লিউএইচও’র বিরোধ বাঁধে করোনা চিকিৎসায় হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহার নিয়ে।

কয়েক দিন আগে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহার না করার নির্দেশনা দিলেও তা মানেনি ব্রাজিল। যদিও বৃহস্পতিবার এই অবস্থান থেকে সরে এসেছে ডব্লিউএইচও। হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নিয়ে তারা বলেছে, পরীক্ষামূলকভাবে এই ওষুধ ব্যবহারে কোনো বাধা নেই।

তবে এসবের সঙ্গে ডব্লিউএইচও’র প্রতি ক্ষোভ প্রকাশের কোনো সম্পর্ক নেই বলে জানালেন বোলসোনারো। বরং যুক্তরাষ্ট্র সংগঠনটি থেকে বার্ষিক ৪০ কোটি ডলার অনুদান সরিয়ে ঘোষণা দেওয়ার পর তাদের টনক নড়েছে বলে দাবি তার।

“ট্রাম্প তাদের ওপর আর্থিক অনুদান কেটে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। এখন তারা সবকিছুতেই আগের অবস্থায় ফিরেছে। কোরানো চিকিৎসায় ফিরিয়ে আনা হয়েছে ক্লোরোকুইনও।”

 এদিকে, ব্রাজিলে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যু আরও বেড়েছে। দক্ষিণ আমেরিকার বৃহত্তম দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ১৪ হাজার ছাড়িয়েছে। এই তালিকায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের পরেই তাদের অবস্থান।

ব্রাজিলে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৩ হাজার ৭০০, যা বৈশ্বিক তালিকায় তৃতীয় সর্বোচ্চ। এই তালিকায় তাদের ওপরে কেবল যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য।

লাতিন আমেরিকার দেশটিতে করোনা ভাইরাসের প্রকৃত পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের। পর্যাপ্ত সংখ্যক টেস্ট হলে আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ বা এর বেশি গুণ বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
শীর্ষনিউজ/এম