শনিবার, ১৬-জানুয়ারী ২০২১, ০২:৩০ পূর্বাহ্ন
  • অন্যান্য
  • »
  • রুক্ষ পাথুরে জমিতে ১২ ফুটের ধাতব স্তম্ভ, ঘনীভূত হচ্ছে রহস্য

রুক্ষ পাথুরে জমিতে ১২ ফুটের ধাতব স্তম্ভ, ঘনীভূত হচ্ছে রহস্য

shershanews24.com

প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর, ২০২০ ০২:২৫ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ ডেস্ক : লাল পাথুরে জমি। তার মধ্যেই দাঁড়িয়ে ধাতুর তৈরি ত্রিকোণ স্তম্ভ। চকচকে, মসৃণ। উচ্চতা প্রায় দু’মানুষ সমান। আমেরিকার উটাহ রাজ্যের দক্ষিণ প্রান্তের এই মরুভুমির মধ্যে কে বসালো এই স্তম্ভটি? সরকারি পক্ষ থেকে কোনো স্পষ্ট জবাব মেলেনি। তবে তদন্ত শুরু হয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই ‘উড়ে এসে, জুড়ে বসা’ স্তম্ভটি নিয়ে তুমুল রহস্য তৈরি হয়েছে। খবর চাউর হতেই ঝাঁপিয়ে পড়েছেন নেটিজেনরা। তত্ত্ব-পাল্টা তত্ত্বে সরগরম হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। কেউ বলছেন, এলিয়ানরাই এই রুক্ষভূমিতে স্তম্ভটি বসিয়ে দিয়ে গিয়েছে। কারও মতে, এটি ইউএফও’র অংশ। তবে সাইন্স ফিকশন ছবির পরিচালক স্ট্যানলে কুব্রিকের ভক্তরা আবার এই স্তম্ভের মধ্যে ‘২০০১ : স্পেস ওডিসি’ ছবির মিল খুঁজে পাচ্ছেন। একে এক শিল্পীর ভাস্কর্যও বলে দাবি করছেন কেউ কেউ।

ঘটনার সূত্রপাত গত বুধবার আমেরিকার উটাহ রাজ্যের দক্ষিণ ভাগে। সেখানকার জন সুরক্ষা দপ্তরের কর্মীর নজরে আসে প্রায় ১২ ফুট লম্বা ধাতব স্তম্ভটি। এর উপর দিয়ে বিমান নিয়ে যাওয়ার সময় পাইলট ব্রেট হাচিংস প্রথম সেটি দেখেন। সঙ্গে সঙ্গে সহকর্মীদের খবর দেন তিনি। উটাহ হাইওয়েতে নজরদারির দায়িত্বে থাকা এক কর্মকর্তা বলেন, দেখে কোনোভাবে স্তম্ভটিকে ভিনগ্রহের বলে মনে হয়নি। তবে শক্ত পাথুরে জমিতে কে বা কারা সেটি পুঁতে দিয়ে গেছে, সেব্যাপারে কোনো জবাব দিতে পারেননি তিনি। স্থানীয় প্রশাসন এই নিয়ে ধাঁধা জিইয়ে রেখে বলেছে, আপনি মহাবিশ্বের যেকোনো প্রান্তেরই হোন না কেন, অনুমতি ছাড়া সরকারি জমিতে কোনো রকম কাঠামো তৈরি বা কিছু বসানো সম্পূর্ণ বেআইনি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই রহস্যময় স্তম্ভটির সঠিক অবস্থানও জানতে চাইছেন প্রশাসনের কাছে। তবে এখনই এব্যাপারে কোনো তথ্য দিতে নারাজ আধিকারিকরা। তাদের আশঙ্কা, এর অবস্থান জানতে পারলেই বহু মানুষ সেখানে ভিড় জমাবেন। তাতে অন্য সমস্যা তৈরি হতে পারে।

এদিকে, শুধু তত্ত্বের কচকচানি নয়, মনোলিথটি নিয়ে মজার মজার পোস্টও করছেন নেটিজেনরা। ইনস্টাগ্রামে একজন লিখেছেন, ‘এটি ২০২০ সালের ‘রিসেট বাটন’। দয়া করে কেউ এটি টিপে দেবেন?’ আর এক ইউজার মজা করে লিখেছেন, ‘এর মধ্যেই করোনার ভ্যাকসিন রয়েছে।’ সূত্র : বর্তমান
শীর্ষনিউজ/এসএসআই