মঙ্গলবার, ১৯-নভেম্বর ২০১৯, ০৫:৪৩ অপরাহ্ন
  • খেলা
  • »
  • ইকুয়েডরকে উড়িয়ে দিয়েছে আর্জেন্টিনা

ইকুয়েডরকে উড়িয়ে দিয়েছে আর্জেন্টিনা

shershanews24.com

প্রকাশ : ১৩ অক্টোবর, ২০১৯ ১০:৩২ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ ডেস্ক: নিষেধাজ্ঞার জন্য এই ম্যাচে ছিলেন না আর্জেন্টিনার প্রাণভোমরা লিওনেল মেসি। ছিলেন না সার্জিও আগুয়েরো, ডি মারিয়া, মাউরো ইকার্দিরা। ইকুয়েডরের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে তারকাদের ছাড়াই বড় জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। ইকুয়েডরকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে লা আলবিসেলেস্তেরা। প্রথমার্ধেই ইকুয়েডরকে তিন গোল দিয়ে ম্যাচ নিজেদের করে নেয় আর্জেন্টাইনরা।

স্প্যানিশ ক্লাব এলচের ঘরের মাঠ এস্তাদিও ম্যানুয়েল মার্টিনেজ ভালেরোতে মুখোমুখি হয় আর্জেন্টিনা-ইকুয়েডর। আগের ম্যাচে জার্মানির মাঠে গিয়ে ২-২ গোলের ড্র নিয়ে ফেরে আর্জেন্টিনা। লিওনেল স্কালোনির  আর্জেন্টাইন শিষ্যরা কোপা আমেরিকার সেমি ফাইনালে ব্রাজিলের বিপক্ষে হেরেছিল। শেষ ৯ ম্যাচের মাত্র একটিতেই হেরেছে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

আর্জেন্টিনার কোচ স্কালোনি তার শিষ্যদের ৪-৪-২ ফরমেশনে মাঠে নামান। শুরুর একাদশে মাঠে নামেন মারচেশিন, হুয়ান ফত, জার্মান পেজ্জেলা, কান্নেমান, মার্কোস আকুনা, নিকোলাস গঞ্জালেস, রদ্রিগো ডি পল, লেনাদ্রো পারেদেস, লুকাস ওকাম্পোস, লুকাস আলারিও এবং লাউতারো মার্টিনেজ।

ম্যাচের ১৬তম মিনিটে লাউতারো মার্টিনেজকে হতাশ করেন ইকুয়েডরের গোলরক্ষক পেদ্রো অরতিজ। ২০ মিনিটের মাথায় লিড নেয় আর্জেন্টিনা। মার্কোস আকুনার অ্যাসিস্ট থেকে ডি-বক্সের ছয়গজ দূর থেকে জোরালো শটে গোল করেন লুকাস আলারিও। ১-০ গোলে এগিয়ে যায় দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ২৭ মিনিটের মাথায় ইকুয়েডরের জারিও এসপিনোজার আত্মঘাতী গোলে ২-০ তে এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা। আকুনার ক্রস ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালে বল জড়ান জারিও।

ম্যাচের ৩১ মিনিটের মাথায় আকুনা-মার্টিনেজের আক্রমণ ভেঙে দিতে নিজেদের ডি-বক্সে অবৈধভাবে বাধা দেন আইমার। হলুদ কার্ড দেখিয়ে তাকে সতর্ক করার পাশাপাশি আর্জেন্টিনার পক্ষে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। পেনাল্টি থেকে আর্জেন্টিনাকে ৩-০ গোলে এগিয়ে নেন লেনাদ্রো পারেদেস। বিরতির আগে আর কোনো গোল না হলে এই স্কোরে এগিয়ে থাকে আর্জেন্টিনা।

বিরতির পর বেশ কিছু পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামে দুই দল। পারেদেসকে তুলে গঞ্জালো রদ্রিগেজ আর লাউতারো মার্টিনেজকে তুলে আর্জেন্টাইন কোচ মাঠে পাঠান পাওলো দিবালাকে। এদিকে, ইকুয়েডর আত্মঘাতী গোল করা এসপিনোজার বদলি হিসেবে মাঠে নামায় লোপেজকে আর ক্যাসটিলোর বদলি হিসেবে মাঠে নামেন ৩১ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড অ্যাঞ্জেল মেনা। বদলি নেমেই ম্যাচের ৪৯ মিনিটের মাথায় ইকুয়েডরের হয়ে গোল করেন মেনা। ম্যাচের স্কোর দাঁড়ায় ৩-১।

৫৯ মিনিটে আর্জেন্টিনার প্রথম গোলদাতা আলারিওর বদলি হিসেবে মাঠে আসেন নিকোলাস ডমিনগুয়েজ। ৬৬ মিনিটের মাথায় স্কোরলাইন ৪-১ করেন আর্জেন্টিনার জার্মান পেজ্জেলা। জুভেন্টাসের তারকা পাওলো দিবালার অ্যাসিস্ট থেকে গোলটি করেন তিনি। ৭০ মিনিটে গঞ্জালেসের বদলি নামেন ভারগাস আর ৭৭ মিনিটে হুয়ান ফতের বদলি হিসেবে আসেন সারাভিয়া।

৮২ মিনিটের মাথায় গোল করেন বদলি নামা ডমিনগুয়েজ। রদ্রিগেজের বাড়িয়ে দেওয়া বলে ডি-বক্সের বাইরে থেকে জোরালো শট নেন ডমিনগুয়েজ। তার বাঁকানো দ্রুতগতির শট চোখের পলকে জালের ঠিকানা খুঁজে নিলে আর্জেন্টিনা ৫-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায়। ৮৬ মিনিটে লুকাস ওকাম্পোসের শট ইকুয়েডরের গোলরক্ষক অরজিত রুখে দিলেও নিজের নিয়ন্ত্রণে বল রাখতে পারেননি। ফিরতি শটে আর্জেন্টিনাকে ৬-১ ব্যবধানে এগিয়ে নেন জার্মানির বিপক্ষে আগের ম্যাচের গোলদাতা লুকাস ওকাম্পোস। ম্যাচের বাকি সময়ে আর কোনো গোল না হলে এই স্কোরে ম্যাচ জিতে মাঠ ছাড়ে আর্জেন্টিনা।

শীর্ষনিউজ /এসএসআই