রবিবার, ১৫-ডিসেম্বর ২০১৯, ০৩:১৮ অপরাহ্ন
  • জাতীয়
  • »
  • পাটুরিয়া ঘাটেও ভোগান্তি 

পাটুরিয়া ঘাটেও ভোগান্তি 

shershanews24.com

প্রকাশ : ১০ আগস্ট, ২০১৯ ১০:২৭ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ, মানিকগঞ্জ: মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটে ভোগান্তি কমেনি ঈদে ঘরমুখী যাত্রীদের। আজ শনিবার ভোর থেকেই ঘাটে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। যাত্রীবাহী বাসগুলোকে গড়ে তিন থেকে পাঁচ ঘণ্টা করে ঘাট এলাকায় আটকে থাকতে দেখা গেছে।
এদিকে শনিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে ধীরগতিতে চলাচল করতে দেখা গেছে যানবাহনগুলোকে। ফলে ঘরমুখী যাত্রীরা ব্যাপক ভোগান্তিতে পড়ছেন।
পুলিশ, যাত্রী ও পরিবহনশ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার দুপুর ১২টার পর থেকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে যানবাহনের চাপ অনেকটা বেড়ে যায়। এর প্রভাব পড়ে পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকাতেও। মহাসড়কের বারবাড়িয়া, মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড, মহাদেবপুর, ফলসাটি ও টেপড়া এলাকায় শনিবার সকাল থেকেই যানজটের সৃষ্টি হয়। পুখুরিয়া থেকে টেপড়া পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার এলাকায় দীর্ঘ যানজটে যানবাহনগুলোকে আটকে থাকতে হয়েছে। পরে প্রায় এক ঘণ্টা পর পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়।
শনিবার সকালে ঘাট এলাকায় সরেজমিনে দেখা গেছে, সকাল থেকে বেলা দুইটা পর্যন্ত পাটুরিয়ার চারটি ঘাটের সব কটিতেই যাত্রী ও যানবাহনের চাপ ছিল। যাত্রীবাহী বাসগুলো উথলী-পাটুরিয়া সড়কের নবগ্রাম পর্যন্ত যানজটে আটকা পড়ে।
ভুক্তভোগী কয়েকজন যাত্রী বলেন, ঢাকার গাবতলী থেকে পাটুরিয়া ঘাটে পৌঁছাতে স্বাভাবিক সময়ে দুই থেকে আড়াই ঘণ্টা সময় লাগে। তবে বর্তমানে সেখানে সাত থেকে আট ঘণ্টা সময় লাগছে। এ ছাড়া পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় এসে তিন থেকে চার ঘণ্টা করে যাত্রীবাহী বাস ও ছোট যানবাহনগুলোকে আটকে থাকতে হচ্ছে।
গোল্ডেন লাইন পরিবহনের বাসে করে স্ত্রী ও দুই শিশুসন্তানকে নিয়ে যশোরের কেশবপুরে গ্রামের বাড়ি যাচ্ছিলেন ইমতিয়াজ হোসেন। তিনি বলেন, শনিবার সকাল সাতটার দিকে ঢাকার গাবতলী থেকে বাসটি ছাড়ে। পাটুরিয়া ঘাটের অদূরে আরসিএল মোড় এলাকা পর্যন্ত পৌঁছাতে প্রায় ছয় ঘণ্টা সময় লেগেছে।
ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বিভিন্ন এলাকায় পুলিশ সদস্যদের পাশাপাশি দায়িত্ব পালন করেন জেলা পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীমও। তিনি বলেন, ফিটনেসবিহীন গাড়ি রাস্তায় বিকল হওয়া এবং যানবাহনগুলোর আগে যাওয়ার প্রতিযোগিতার কারণে সকালে সাময়িক যানজটের সৃষ্টি হয়। অতিরিক্ত যাত্রী ও যানবাহনের চাপে মহাসড়কে যানবাহনগুলোকে অত্যন্ত ধীরগতিতে চলাচল করতে হচ্ছে। এ ছাড়া ঢাকাগামী পশুবাহী যানবাহনের কারণেও বাড়তি চাপ সৃষ্টি হয়েছে।
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, নদীতে তীব্র স্রোতের কারণে যানবাহন পারাপারে অতিরিক্ত সময় লাগছে ফেরিগুলোর। এ ছাড়া রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া প্রান্তে কোরবানির গরু বোঝাই ট্রাকের কারণে ফেরির সময় বেশি লাগছে। শনিবার পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে ছোট-বড় মিলিয়ে ২০টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে বলেও জানা গেছে।
বিআইডব্লিউটিসি আরিচা কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. সালাউদ্দিন বলেন, দুদিন ধরে পাটুরিয়ায় যাত্রী ও যানবাহনের প্রচণ্ড চাপ বেড়েছে। তবে পর্যাপ্ত ফেরি থাকায় এবং দুপুরের পর যানবাহন ও যাত্রীর চাপ কমে যাওয়ায় পারাপারে তেমন কোনো সমস্যা হচ্ছে না।
শীর্ষনিউজ/প্রতিনিধি/জে