শনিবার, ১৬-জানুয়ারী ২০২১, ০২:৪১ পূর্বাহ্ন
  • অফিস-আদালত
  • »
  • শ্লীলতাহানির মামলার কথা বাদী নিজেই জানেন না

শ্লীলতাহানির মামলার কথা বাদী নিজেই জানেন না

shershanews24.com

প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর, ২০২০ ০৯:০২ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ , ঢাকা : এক নারীর এনআইডি কার্ড ও ঠিকানা ব্যবহার করে দুই আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মামলা হয়েছে ঢাকার আদালতে। আদালতে এসে বাদী জানান, তিনি কারো বিরুদ্ধে মামলা করেননি। আসামিদের ধারণা, স্থানীয় এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের ষড়যন্ত্রের শিকার তারা।

ঘটনা পহেলা নভেম্বরের। ঢাকার আদালতে এক নারীর অভিযোগ, সুনামগঞ্জ ও নেত্রকোনার দুই আওয়ামী লীগ নেতা শামীম আহমেদ মুরাদ ও রেজুয়ান আলী আর্নিক বসুন্ধরায় শামীমের বাসায় ডেকে তাকে শ্লীলতাহানি করেছে।

অথচ সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, ঘটনার সময় ও দিনে শামীম ঢাকাতেই ছিলেন না, ছিলেন সুনামগঞ্জে। অপর আসামি আর্নিকের কললিস্ট বলছে আসামি আর্নিক ছিলেন রাজধানীর বনানী এলাকায়।

তাহলে কেন ওই নারী তাদের বিরুদ্ধে এমন মামলা করলেন। ঘটনা জানতে বাদীকে সমন দেন আদালত। আদালতের নোটিশ পেয়ে অবাক বাদী। তিনি জানান, তার ন্যাশনাল আইডি কার্ড ও ঠিকানা ব্যবহার করে অজ্ঞাত কোনো ব্যক্তি ওই মামলাটি করেছেন। তিনি কোনো মামলা করেননি।

আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সালমা হাই টুনি বলেন, এই এনআইডি ধারী মহিলা রেহানা বেগম আদালতে এসে কোনো মামলা ফাইলিং করেননি। আর্জিতে কখনোই সই করেননি, আদালতেই আসেননি।

আসামি দুই আওয়ামী লীগে নেতার ধারণা স্থানীয় এমপির ষড়যন্ত্রে তাদের বিরুদ্ধে এই মিথ্যা মামলা।

ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহমেদ মুরাদ বলেন, সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের পরিবারতন্ত্র, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসসহ বিভিন্ন বিষয়ে বক্তব্য দিয়েছিলাম।

সোমবার এই মামলায় কথিত বাদী ও দুই আসামির আদালতে হাজির হওয়ার কথা রয়েছে। এরই মধ্যে মামলার কথিত বাদী হলফনামা আকারে তিনি মামলা করেননি বলে আদালতে কাগজপত্র দাখিল করেছেন।

শীর্ষনিউজ/আরএইচ