মঙ্গলবার, ২৪-সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:২৮ পূর্বাহ্ন
  • অফিস-আদালত
  • »
  • সাইবার ট্রাইব্যুনালে রাফির ভাই: নেকাব খুলে আপত্তিকর প্রশ্ন করেন ওসি মোয়াজ্জেম

সাইবার ট্রাইব্যুনালে রাফির ভাই: নেকাব খুলে আপত্তিকর প্রশ্ন করেন ওসি মোয়াজ্জেম

shershanews24.com

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০১:৩৪ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ, ঢাকা: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে নুসরাত জাহান রাফির মা ও ভাই আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। 
বুধবার সাইবার ট্রাইব্যুনালের (বাংলাদেশ) বিচারক মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালতে তারা সাক্ষ্য দেন। 
রাফির ছোট ভাই বলেন, ওসি মোয়াজ্জেম তার রুমে আপুকে (রাফিকে) ডেকে নিয়ে তার মুখের পর্দা (নেকাব) খুলে আপত্তিকর প্রশ্ন করেছেন। এ মামলায় মা ও ভাইসহ পাঁচজনের সাক্ষ্য নেয়া হল। পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য ১৯ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন আদালত।
ট্রাইব্যুনালে নুসরাতের মা শিরিন আক্তার বলেন, ২৭ মার্চ রাফিকে নিয়ে আমরা থানায় যাই। এরপর ওসি মোয়াজ্জেম রুমে তাকে (রাফি) ডেকে নেয়। সেখানে অন্যদের যেতে দেয়া হয়নি। কিছু সময় পর ওসির রুম থেকে বেরিয়ে রাফি জানায়, তার কথোপকথন কেউ ভিডিও করেছে। এর ৩০ মিনিট পর ওসি মোয়াজ্জেম সেই ভিডিও মিডিয়াতে ছেড়ে দেন।
আদালতে রাফির ছোট ভাই রাশিদুল হাসান রায়হান বলেন, সোনাগাজী থানায় মামলা করতে গেলে ওসি মোয়াজ্জেম তার রুমে আপুকে (রাফিকে) ডেকে নেন। এরপর ওসির রুম থেকে বেরিয়ে এসে আপু কান্না করতে থাকে। আপু বলে, ওসি মোয়াজ্জেম তার মুখের পর্দা খুলে আপত্তিকর প্রশ্ন করেছেন।
মামলা করার পর আমরা চলে আসি। ১২ এপ্রিল ফেসবুকে দেখতে পাই, আপুকে ওসি মোয়াজ্জেম আপত্তিকর প্রশ্ন করছেন। ওদিন ওসি মোয়াজ্জেম আইনি সহায়তা দিলে আপুকে আজ পরপারে (মৃত্যুবরণ) যেতে হতো না। এরপর আসামিপক্ষের আইনজীবী ফারুক আহাম্মদ সাক্ষীদের জেরা করেন। সাক্ষ্যগ্রহণের সময় মোয়াজ্জেমকে কারাগার থেকে ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হয়।
শীর্ষনিউজ/জে