বুধবার, ১৬-জুন ২০২১, ০৫:৪৫ অপরাহ্ন
  • প্রশাসন
  • »
  • ঢাকার পাহারায় পুলিশের ব্যাপক প্রস্তুতি

ঢাকার পাহারায় পুলিশের ব্যাপক প্রস্তুতি

shershanews24.com

প্রকাশ : ১৪ মে, ২০২১ ১০:১৭ পূর্বাহ্ন

শীর্ষনিউজ, ঢাকা: করোনা মহামারির এই অস্থির সময়ে এসেছে ঈদ। গতবছরের মতো এবারের ঈদেও ‘লকডাউন’ চলছে। কিন্তু বলতে গেলে তা কেউই মানছে না। অনেকেই রাজধানী ঢাকা ছেড়ে নাড়ীর টানে ছুটে গেছে বাড়িতে। তাই প্রতিবছরের মতো এবারও ফাঁকা ঢাকা। আর এই ফাঁকা ঢাকার পাহারায় ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। কোলাহলমুক্ত ঢাকায় চুরি, ছিনতাই, ডাকাতিসহ নানারকম অপরাধ সংঘটিত হতে পারে মর্মে এসব প্রতিরোধে কাজ শুরু করেছে পুলিশ। আর তাদের সহযোগিতায় রয়েছে র‌্যাব, ডিবি পুলিশ ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা।

পুলিশ জানিয়েছে, এবার ঈদে ঢাকা ছেড়ে আগের ঈদগুলোর মতো মানুষ গ্রামে না গেলেও ১০ লাখের মতো মানুষ রাজধানী ছেড়েছে। বলতে গেলে ঈদের সময় বেশিরভাগ মানুষ ঘরেই থাকে। এর মধ্যে যোগ হয়ে করোনা। আর করোনাকালীন সবকিছু বন্ধ থাকায় মানুষজন একেবারেই ঘর থেকে বের হতে পারবে না। এতে রাজধানীর সড়কসহ সবকিছুই ফাঁকা থাকবে। আর ফাঁকা থাকায় অপরাধীরা সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করবে। তাই পুলিশ সাদা পোশাকে পুরো রাজধানী জুড়ে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করবে। এতে থানা পুলিশ ছাড়াও পিওএম ও গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরাও রয়েছে।

অন্যদিকে বিমানবন্দর, শিল্প এলাকা, ট্যুরিস্ট ও নৌ এলাকাগুলোর নিরাপত্তায় আর্মড পুলিশ, শিল্প পুলিশ, ট্যুরিস্ট ও নৌ পুলিশ কাজ করবে। এদিকে ফাঁকা ঢাকার নিরাপত্তায় বিট পুলিশ সদস্যদের সজাগ থাকতে বলা হয়েছে। কারণ কোনো কিছু ঘটার সঙ্গে সঙ্গে বিট পুলিশ সবার আগে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। এছাড়া বিট পুলিশের ইনচার্জ থানার দারোগাকে সার্বক্ষণিক মনিটরিং করতে বলা হয়েছ।

 মিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাজিরুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ঈদ কেন্দ্রিক অপরাধ ঠেকাতে টহল পুলিশের টিম বাড়ানো হয়েছে। সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা জোরদার থাকবে। সবার ছুটি বাতিল করা হয়েছে।’

যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম কাজল বলেন, ‘ঈদে চুরি ও ছিনতাই বেড়ে যায়। সেটি ঠেকাতে পুলিশ মাঠে থাকবে। টহল গাড়ির সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। বিট পুলিশ সদস্যদের সজাগ রাখা হয়েছে। গ্রিল কাটা চোরদের ধরতে সিসি ক্যামেরার মনিটরিং বাড়ানো হয়েছে।’

ডিএমপি ও র‌্যাব সদর দফতর থেকে জানা গেছে, ‘ঈদের নিরাপত্তায় কোনো ধরনের থ্রেট নেই। এরপরেও পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা সবসময় সতর্ক ভূমিকায় থাকবে। ঈদ জামাত কেন্দ্রিক ও আশেপাশের এলাকাগুলোতে ব্যাপক নিরাপত্তার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। বায়তুল মোকাররমের আশেপাশে পুলিশের রায়টকার, এপিসি কার ও বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট মোতায়েন থাকবে। থাকবে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা।

ডিএমপির গণমাধ্যম শাখার অতিরিক্ত উপ কমিশনার ইফতেখারুল ইসলাম বলেন, ‘করোনাকালীন ঈদ জামাত ও ফাঁকা রাজধানী পাহারায় পুলিশ একইনসঙ্গে নিরাপত্তা ও নজরদারির কাজ করবে।

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (ক্রাইম) কৃঞ্চ পদ রায় বলেন, ‘ঢাকায় কোনো ধরনের নাশকতার হুমকি নেই। তার পরও পুরো রাজধানীতে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। যাতে কোথাও কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি না হয়। ঢাকাবাসী নির্বিঘ্নে ঈদ উদযাপন করবে। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঘরে থেকে ঈদ উদযাপন করার আহ্বান জানাই। সবাই সবাইকে নিরাপদে রাখি।’
শীর্ষনিউজ/এম