শনিবার, ২৪-জুলাই ২০২১, ১১:০৩ পূর্বাহ্ন
  • জেলা সংবাদ
  • »
  • দিনে ব্যাংকে ঢুকে লুকিয়ে থেকে রাতে চুরির চেষ্টা

দিনে ব্যাংকে ঢুকে লুকিয়ে থেকে রাতে চুরির চেষ্টা

shershanews24.com

প্রকাশ : ১৬ জুন, ২০২১ ০৪:৫৩ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ, শেরপুর: শেরপুরে দিনে ব্যাংকে ঢুকে লুকিয়ে থেকে রাতে চুরির চেষ্টার অভিযোগে মো. শামীম (২৮) নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় আটক ব্যক্তির আঘাতে ব্যাংকের নিরাপত্তাপ্রহরী মো. আনোয়ার হোসেন (৩৬) আহত হয়েছেন। তাঁকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার গভীর রাতে সদর উপজেলার কুসুমহাটি বাজারে অবস্থিত কৃষি ব্যাংকে এ ঘটনা ঘটে।

আটক মো. শামীমের বাড়ি সদর উপজেলার বয়ড়া পরানপুর গ্রামে। আর প্রহরী আনোয়ার সদর উপজেলার গনই ভরুয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

পুলিশ ও ব্যাংক কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বিকেলে শামীম ব্যাংকে ঢুকে গোপনে লুকিয়ে থাকেন। সন্ধ্যার আগে ব্যাংকের কর্মকর্তারা ব্যাংক বন্ধ করে তালা লাগিয়ে চলে যান। রাত সাড়ে আটটার দিকে ব্যাংকের নিরাপত্তাপ্রহরী আনোয়ার হোসেন ব্যাংকের তালা খুলে ভেতরে ঢোকেন। ব্যাংকে ঢুকে টিভি দেখে রাত দেড়টার দিকে প্রহরী শুয়ে পড়েন। হঠাৎ জেগে দেখেন, তাঁর মাথার পাশে মুঠোফোন ও ব্যাংকের দোতলায় প্রবেশফটকের চাবি নেই। তখন বিছানা থেকে উঠে দাঁড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে শামীম নিরাপত্তাপ্রহরী আনোয়ারকে মাথায় লোহার রড দিয়ে আঘাত করে জখম করেন। এতে আনোয়ার আহত হন। এ সময় আনোয়ার ও শামীমের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। একপর্যায়ে আনোয়ার চিৎকার শুরু করলে শামীম তাঁর মুঠোফোনটি ব্যাংকের ভেতর ফেলে রেখে পালানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু ব্যাংকের নিচতলার প্রধান ফটক বন্ধ থাকায় শামীম পালাতে না পেরে ব্যাংকের সিঁড়িসংলগ্ন শৌচাগারে লুকিয়ে থাকেন। আনোয়ারের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন দ্রুত ব্যাংক প্রাঙ্গণে জড়ো হন।

গতকাল রাত আড়াইটার দিকে সংবাদ পেয়ে সদর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশ নিরাপত্তাপ্রহরী আনোয়ারের কাছ থেকে চাবি নিয়ে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় ব্যাংকের প্রধান ফটকের তালা খুলে ব্যাংকে যায়। আহত আনোয়ারকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। শামীমকে আটক করে পুলিশ থানায় নেয়।

সংবাদ পেয়ে ব্যাংকের ব্যবস্থাপক সাদিকুর রহমান ব্যাংকে যান। পুলিশের সহযোগিতায় ব্যাংকের ভল্ট পরীক্ষা করে দেখেন যে সবকিছু সুরক্ষিত আছে এবং ব্যাংকের কিছু খোয়া যায়নি। সেখানে পুলিশ প্রহরার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি জানান, ব্যাংকের সবকিছু সুরক্ষিত আছে। এ ব্যাপারে ব্যাংকের আইন উপদেষ্টার সঙ্গে পরামর্শ করে থানায় অভিযোগ দেওয়া হবে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুনসুর আহাম্মদ জানান, এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন। আটক শামীমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, শামীম একজন পেশাদার চোর। তাঁর সঙ্গে অন্য কোনো চক্রের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে কি না, সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
শীর্ষনিউজ/আরএইচ