shershanews24.com
‘সাত হাজার টাকা বেতন’ থেকে যেভাবে হাজার কোটির মালিক অমির পরিবার
মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১ ১১:০৬ পূর্বাহ্ন
shershanews24.com

shershanews24.com

শীর্ষনিউজ, ঢাকা: ঢাকা বোট ক্লাবে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার ঘটনায় অভিনেত্রী পরী মণির দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তারের পর আলোচনায় নাসির ইউ মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমি। জানা গেছে, অমি এক সময় ঢাকা মহানগর উত্তর যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক ছিলেন। এমনকি তার বাবা তোফাজ্জল হোসেন ওরফে আদম তোফাজ্জলও বিএনপির রাজনীতি করতেন। এখন তারা ভোল্ট পাল্টে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছেন বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, সিঙ্গাপুরে সাত হাজার টাকা বেতনে চাকরি করতেন অমির বাবা। অথচ তার পরিবার এখন কয়েক হাজার কোটি টাকার মালিক।   

চিত্র নায়িকা পরী মণি জানান, অমিই তাকে মিথ্যা কথা বলে বোট ক্লাবে নিয়ে গেছেন। সেখানে তাকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা করা হয়। এ ঘটনায় তিনি মামলা দায়ের করলে সোমবার পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। 

গ্রেপ্তারের পর সোমবার ঢাকা বোট ক্লাব থেকে নাসির, অমি ও শাহআলম নামে তিনজনকে বহিষ্কার করে কর্তৃপক্ষ।  

পুলিশের দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, অমির পুরো নাম তুহিন সিদ্দিকী অমি। তার বাবার নাম তোফাজ্জল হোসেন। তবে তাকে এলাকায় আদম তোফাজ্জল হিসাবেই চেনে সবাই। তাছাড়া বাবা-ছেলের বিরুদ্ধে সোনা চোরাচালান ও হুন্ডি ব্যবসার অভিযোগ আছে। এক সময় অমি ঢাকা মহানগর যুবদল উত্তরের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তার বাবাও বিএনপির রাজনীতি করতেন। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর তারা ভোল্ট পাল্টে ফেলেন।

অভিযোগ আছে, মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে শাসক দলের নেতাদের ম্যানেজ করেন তারা। অমি আশকোনায় দেড় বিঘা জমির ওপর সিঙ্গাপুর ট্রেনিং স্কুল নামে একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। তা ছাড়া আশকোনা হুদা মসজিদ রোডে ৫ কাঠার ওপর ৬ষ্ট তলার আলিশান বাড়ি রয়েছে। এ বাড়ির সংলগ্ন ৫ কাঠা জমি, দক্ষিণখানের দৌবাইদা এলাকায় দেড় বিঘার ওপর সিঙ্গপুর নামে আরেকটি ট্রেনিং স্কুল, উত্তরখানের হেলান মার্কেট সংলগ্ন বিশাল গেস্ট হাউজ, টাঈাইলের কটিয়ার বাইপাশে বিশাল অট্টালিকা, রেস্টুরেন্ট, মসজিদ, মাদ্রাসা ও হাসপাতাল ও ঢাকার উত্তরার ৪ নম্বর সেক্টরে দুটি আলিশান ফ্ল্যাট রয়েছে তার।

আশকোনা এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা বলেন, অমি ও তার বাবা মিলে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে চলেছেন। সিঙ্গাপুর ট্রেনিং সেন্টারের আড়ালে তারা মানবপাচার করতেন। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও কতিপয় সাংবাদিকদের ম্যানেজ করতেন নিয়মিত। অমি বেশিরভাগ সময় সিঙ্গাপুর, দুবাই ও লন্ডনে আসা-যাওয়া করতেন। এমনকি লন্ডনে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে দেখা করতেন বলে এলাকায় প্রচার আছে।

তারা জানায়, অমি এসএসসির গন্ডিও পেরোতে পারেননি। এক সময় আদম তোফাজ্জলের কিছুই ছিল না। সিঙ্গাপুরে সাত হাজার টাকা বেতনে চাকরি করতেন। অথচ তিনি এখন কয়েক হাজার কোটি টাকার মালিক।   

অভিযোগের বিষয় নিয়ে জানতে চাইলে অমির বাবা তোফাজ্জল হোসেনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি সাড়া দেননি।

শীর্ষনিউজ/এসএফ